জল তরণীর সঙ্গী

ঢাকা থেকে বরগুনায় ফুফু বাড়ি বেড়াতে এসেছে নাদিম। ঢাকার বিএফ শাহিন কলেজে পড়ে সে । দেশের সৌন্দর্য দেখা তার খুব শখ। আর তাই ফুফাতো বোনের কাছে তার বায়না ছিল, বরগুনার দর্শনীয় স্থান ঘুরে দেখাতে হবে। নাদিমের ফুফাতো বোন শায়লা সরকারি কলেজের ছাত্রী। যদিও অনেকদিন থেকে বরগুনায় বসবাস করে, তবু তেমন কিছুই চেনে না। কাছাকাছি এমন কোন স্থান সম্পর্কে তার ধারনা নেই, যেখানে একটি বিকেল কাটানোর মত। বরগুনার অনেক কিছুই তার দেখা হয় নি। তাই তেমন কিছু মাথায় আসছিল না। সার্কিট হাউস বা পৌর লেকের ছবি দেখে নাদিম আগেই নাকোচ করে দিয়েছে। তাই ভাবতে হবে নতুন কিছু। শায়লা অনেকটা হতাশ হয়েই নিতান্ত গোবেচারা হয়ে ফেসবুক ঘাটছিল। ভাগ্যক্রমে সেদিনই তার চোখে পড়লো, জল তরণীর ঘুরতে যাওয়া তার কোন এক বান্ধবীর ফেসবুক পোস্ট। আগ্রহী হয়ে তার বান্ধবিকে ইনবক্স করলো, কিভাবে জল তরণীর সাথে কনট্যাক্ট করা যাবে। বান্ধবী দিল ফেসবুকের কয়েকটা রিভিউ পোস্ট। যেখানে যোগাযোগের নম্বরটা উল্লেখ করা ছিল। ব্যস, সমস্যা সমাধান। নাদিমকে বরগুনা দেখানোর জন্য শায়লা ফোন করলো জল তরণীর নম্বরে। *-*-*-*-*-*-*-*-*–*-*-*-*-*-*-*-**-*-*-*- নিজেদের ঘোরাঘুরির গল্পটা এরকম সহজভাবেই বলতেছিল নাদিম আর শায়লা। আপনারাও যারা চিন্তা করছেন, পরিবার পরিজন নিয়ে একটি বিকেল স্মরনীয় করে রাখবেন। তারা জল তরণীর সঙ্গী হতে পারেন। জল তরণী, আপনাদের নিয়ে স্বপ্নীল এক নৌভ্রমনে যেতে সবসময় প্রস্তুত।

সব ধরনের তথ্যের জন্য যোগাযোগ করবেন এই নম্বরে : ০১৭১২১৯৮৬৬৭

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *