টিউমার হয়েছে বলে নারীর স্তন কেটে ফেললেন তিনি

নেত্রকোণার খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট বাজার থেকে মানিক তালুকদার নামে এক ভুয়া চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার দিবাগত রাতে পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও হল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার মানিক তালুকদার মদন উপজেলার কাতলা গ্রামের আমির উদ্দিন তালুকদারের ছেলে। তার বিরুদ্ধে খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট গ্রামের শেফালী আক্তার নামে এক নারীর টিউমার হয়েছে বলে স্তন কেটে ফেলার অভিযোগ রয়েছে। ভুক্তভোগী ওই নারী সোমবার থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগে বলা হয়, গত ৭ এপ্রিল শেফালী আক্তারকে পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও হলে ডেকে নিয়ে যান ইকবাল নামে এক ব্যক্তি। সেখানে তাকে অজ্ঞান করে অপারেশনের নামে ব্লেড দিয়ে তার বাম স্তন কেটে ফেলেন মানিক তালুকদার।

এ ব্যপারে খালিয়াজুরী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এটিএম মাহমুদুল হক বলেন, মানিক তালুকদার মূলত একজন ভুয়া চিকিৎসক। গ্রেফতারের পর তিনি নিজেকে হোমিও ডাক্তার হিসেবে পরিচয় দেন। তার কাছে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেননি।

ওসি আরও জানান, মানিক তালুকদার মা ও শিশু, চর্ম, যৌন সার্জারিতে বিশেষ অভিজ্ঞ পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছে। এ ব্যপারে খালিয়াজুরী থানায় মামলা হয়েছে। প্রতারককে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মাশরুর আহমেদ সিয়াম জানান, স্তনে টিউমারের কথা বলে ওই নারীর স্তন কেটে ফেলা হয়েছে। এতে তার বুকের ২৫-৩০ ভাগ পচে গেছে। তার ক্যানসার হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *